নবীনগরে স্কুল ছাত্রী অপহরণ, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ, তিনদিন পর উদ্ধার,ধর্ষক আটক

নবীনগরে স্কুল ছাত্রী অপহরণ, বিয়ের প্রলোভন
দেখিয়ে ধর্ষণ, তিনদিন পর উদ্ধার,ধর্ষক আটক

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের ঘটনার তিন দিন পর ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে এবং অপহরণকারি বখাটে যুবক রিয়াদুল ইসলাম শান্ত(২০)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার (১৩/০৬) মেয়ের মা শিল্পি আক্তার বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে নবীনগর থানায় মামলা করেন। তাকে জেলা হাজতে প্রেরণ ও ওই ছাত্রীকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষক উপজেলার রসুল্লাবাদ পশ্চিম পাড়া গ্রামের হাজী আবদুর রউফ মিয়ার ছেলে ।
সুত্র জানায়, উপজেলার বাড়িখলা গ্রামের লাউর ফতেহপুর আর.এন.টি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ওই ছাত্রী গত ৮জুন সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর আর বাড়ি ফিরেনি। পাড়া প্রতিবেশী ও আত্বীয় স্বজণদের বাড়িতে খোঁজাখুঁজি করে নাবালিকা ওই ছাত্রীকে না পেয়ে তার পরিবারের ১০জুন নবীনগর থানায় একটি নিখোঁজ সাধারণ ডায়েরী করেন। পরে জানা যায়, ওই ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই বখাটে যুবক তার নিজ বাড়িতে নিয়ে যায় এবং জোর পূর্বক ধর্ষন করে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ওই গ্রামে অভিযান চালালে রিয়াদুল ইসলাম শান্ত ওই ছাত্রীকে নিয়ে অন্যত্র স্থানে পালিয়ে যায়। গোপন সংবাদের ভিওিতে শুক্রবার(১২/০৬)রাতে নবীনগর পৌর এলাকার শেখ রাসেল স্টেডিয়ামের সামনে থেকে ওই স্কুল ছাত্রীকেসহ তাকে আটক করে পুলিশ।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নবীনগর থানার ওসি (তদন্ত) রুহুল আমিন বলেন, এই ঘটনায় ওই স্কুল ছাত্রীর মায়ের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে নবীনগর থানায়,নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে, একটি অপহরণ ও ধর্ষন মামলা দায়ের হয়েছে। আটক রিয়াদুল ইসলাম শান্তকে আদালতে ও ভিকটিমকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মামলাটি তদন্তপূর্বক পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *